আমার ছবিতে নতুনদের সুযোগ থাকবে

326

আলোকিত সকাল ডেস্ক

বর্তমান সময়ে চলচ্চিত্রের শীর্ষস্থান দখল করে রেখেছেন চিত্রনায়ক শাকিব খান। এই দুঃসময়ে শাকিব খান যেন একাই টেনে নিয়ে যাচ্ছেন চলচ্চিত্র শিল্পকে। তার যে ছবিই মুক্তি পাচ্ছে, সেই ছবিটিই ব্যবসা সফল হচ্ছে। গত ঈদেও তার নিজস্ব প্রযোজনার ‘পাসওয়ার্ড’ ব্যবসা সফল হওয়ায় একসঙ্গে চার ছবি নির্মাণের কাজ শুরু করেছেন তিনি। সময়সাময়িক নানা প্রসঙ্গে কথা হলো তার সঙ্গে…

বর্তমানে…

ঈদের ছুটি কাটিয়ে এফডিসিতে জাকির হোসেন রাজু’র ‘মনের মতো মানুষ পাইলাম না’ এর শুটিং শুরু করেছি। ছবিটি সম্ভাব্য কোরবানির ঈদে মুক্তি পাবে। এ ছাড়াও আমার প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান থেকে আরও চারটি ছবি ‘বীর’, ‘প্রিয়তমা’, ‘ফাইটার’, ও ‘পাসওয়ার্ড-২’ এর ঘোষণা দিয়েছি। এগুলো পরিচালনা করবেন বাংলাদেশের স্বনামধন্য পরিচালকরা।

প্রযোজনায় দ্বিতীয় সাফল্য…

‘পাসওয়ার্ড’ আমার প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান এস কে ফিল্মসের দ্বিতীয় চলচ্চিত্র। এর আগে বদিউল আলম খোকন পরিচালিত ‘মাই নেম ইজ খান’ প্রযোজনা করি। দুটি চলচ্চিত্র বেশ সাফল্য পেয়েছে। এই সাফল্য আমার সব সাংবাদিক ভাই, হল বুকিং, হল মালিক ও আমার সব ভক্তের জন্য। সবাই আমার পাশে ছিলেন এটাই আমার বড় সাফল্য।

যৌথ ছবিতে প্রযোজনা…

সেটি সময় বলে দেবে। প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান এস কে ফিল্মস বেশ সাফল্যের সঙ্গে কাজ করছে। ভালো কাজের সঙ্গে সব সময় এস কে ফিল্মস ছিল এবং থাকবে ইনশালস্নাহ। তবে যৌথ প্রযোজনার চেয়ে দেশের চলচ্চিত্রে বেশি অগ্রাধিকার দেব। সু-সময়ে যদি আমাদের চলচ্চিত্রের পাশে থাকতে পারি তাহলে কেন দুঃসময়ে থাকতে পারব না। তবে যে যাই করুন সেটি বুঝেশুনে করাই উচিত।

নতুনের চমক…

আমার ছবি মানেই হচ্ছে নতুন কোনো চমক। মালেক আফসারি’র ‘পাসওয়ার্ড’ চলচ্চিত্রে ইতোমধ্যে সবাই দেখেছেন নতুন দুটি মুখ। আমার প্রযোজনার ছবিতে দুটি করে নতুন মুখ থাকবে। সেটি দেশীয় চলচ্চিত্রের স্বার্থেই হবে। আমি না থাকলেও তো এই অঙ্গন বাঁচাতে হবে।

চলচ্চিত্রে সহকর্মীদের নিয়ে…

শুরু থেকেই আমার সঙ্গে চলচ্চিত্রে অনেকেই সহকর্মী হিসেবে কাজ করেন। সবাই সবার দিক থেকে অনেক ভালো। আমরা সবাই মিলেই একটি পরিবার। তবে আমার অনেক চলচ্চিত্রে মিশা সওদাগর এক একটি ধামাকা। তার সঙ্গে আমি অনেক ছবিতেই কাজ করেছি। যা তার সঙ্গে কিছু টুইস্ট আছে- যা দর্শক খুব পছন্দ করেন। তবে ‘পাসওয়ার্ড’ এ নতুন একটি চরিত্রে কাজ করে দর্শকদের বেশ অবাক করে দিয়েছেন। মাঝপথে তার সঙ্গে অনেক কাজ করতে পারিনি। সেখানে গল্পে পরিচালকরাই বলতে পারেন চলচ্চিত্রে কে কোন চরিত্রে অভিনয় করবেন!

চলচ্চিত্রের বর্তমান প্রেক্ষাপট নিয়ে…

‘কথায় না বড় হয়ে, কাজে বড় হও’। কিছু রাজনীতির কারণে আমাদের দেশীয় চলচ্চিত্র অনেকটা পিছিয়ে পড়েছে। এগুলি সামনের দিকে টেনে তুলতে হবে। আর ছোট ছোট সমস্যাগুলোকে সমাধানও করতে হবে। তাহলেই চলচ্চিত্র অঙ্গনে সুদিন ফিরে আসবে।

ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নিয়ে…

হাত গুটিয়ে বসে থাকলেই হবে না। সামনে আরও ভালো কাজ করতে হবে। পরিশেষে দর্শকদের উদ্দেশে একটি কথাই বলব। আপনারা এখনও দেশি চলচ্চিত্র দেখেন বলেই আমাদের এত সাফল্য। সবাই দেশীয় চলচ্চিত্রের পাশে থাকুন। চলচ্চিত্রের সঙ্গেই আছি, ভবিষ্যতেও চলচ্চিত্র নিয়েই থাকতে চাই।

আস/এসআইসু

Facebook Comments