উন্নয়নের স্বার্থে গ্যাসের দাম বৃদ্ধি মেনে নিন: প্রধানমন্ত্রী

165

আলোকিত সকাল ডেস্ক

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন চাইলে গ্যাসের দাম বৃদ্ধির বিষয়টি মেনে নিন।

তিনি বলেন, দেশের যদি আমরা উন্নতি করতে চাই তাহলে এনার্জি একটা বিষয়। ২০০৮ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশের জিডিপি কতটুকু বেড়েছে? এখন আমরা ৮ দশমিক ১ শতাংশে উন্নতি করেছি। এর কারণ এনার্জি সেক্টরের উন্নতি হয়েছে।

সোমবার বিকেলে গণভবনে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এক সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। চীনে সরকারি সফরের বিষয়ে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন সরকার প্রধান।

প্রধানমন্ত্রী এলএনজি আমদানির খরচ তুলে ধরে বলেন, এটা সত্য যে এলএনজি আমদানির জন্য খরচ বেশি পড়ে। তাই এলএনজি আমদানিতে কতো টাকা খরচ হয় সে হিসেবটাও আমাদের জানতে হবে। প্রতি ঘনমিটার এলএনজি আমদানিতে খরচ পড়ে ৬১.১২ টাকা। আমরা সেটা কত দামে দিচ্ছি? ৯.৮০ টাকায় দিচ্ছি। এই দাম বাড়ানোর পরেও প্রতিবছর ১০ হাজার কোটি টাকা ভর্তুকি দিতে হচ্ছে সরকারকে। এর চেয়ে আর কত কম দামে দেয়া যায়?

গ্যাসের দাম বৃদ্ধির পর অর্ধদিবস হরতাল ও আন্দোলন প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, আন্দোলনের মজার ব্যাপার আছে। বাম আর ডান মিলে গেছে। একসুরে। এখন ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ আছে। আরাম আয়েশে আছে বলে ভুলে গেছে অতীতের কথা। বহুদিন পর হরতাল পেলেন তো, পরিবেশের জন্য ভালো। আন্দোলন যেহেতু চলছে, তাই যে দামে কিনছি সে দামে গ্যাস বিক্রি করব। ৯ টাকাকে ৬১ টাকা করে দেই। তাহলে আমাকে আর ভর্তুকি দিতে হবে না।

অর্থনৈতিক উন্নতি চাইলে গ্যাসের দাম বৃদ্ধিকে মেনে নেয়ার আহ্বান জানিয়ে সরকার প্রধান বলেন, বিদেশেও মেনে নেয়। কেননা গ্যাসের দাম যদি না বাড়ানো হয় হয়, জিডিপি গ্রোথ যাতে না বাড়ে, সে জন্য এলএনজি আমদানি কমিয়ে দিয়ে অর্থনৈতিক খাতটাকে সংকুচিত করতে হবে। সেটা কী ভালো হবে।

গ্যাস নিয়ে বিএনপির রাজনীতির সমালোচনা করে শেখ হাসিনা বলেন, আমার কাছে গ্যাস বিক্রির প্রস্তাব এসেছিল। আমি নাকচ করে দিয়েছি। এ কারণে ২০০১ সালের নির্বাচনে সর্বোচ্চ পরিমাণ ভোট পেয়েও ক্ষমতায় যেতে পারিনি। অথচ খালেদা জিয়া গ্যাস বিক্রির মুচলেকা দিয়েছিল।

তিনি আরো বলেন, মিয়ানমার থেকে ভারতে গ্যাসের পাইপলাইন যাওয়ার জন্য ২০০৪ সালে এমওইউ স্বাক্ষরিত হয়েছিল। অথচ খালেদা জিয়া সেটি বাতিল করে দেন। কিন্তু তখন আমি থাকলে কী করতাম? আমি থাকলে আমার ভাগটা আমি রেখে দিয়ে তারপর বাকি গ্যাস পাঠাতাম। তখন গ্যাস পাওয়া গেলে আমাদের অর্থনীতি লাভবান হত।

সংবাদ সম্মেলনে মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন।

আস/এসআইসু

Facebook Comments