এসেছিলেন জীবিকার তাগিদে, ফিরে যাচ্ছেন হতাশ হয়ে

284

আলোকিত সকাল ডেস্ক

নাম তার রংকেশ্বর। রংপুরের পীরগাছায় বাড়ি। জীবিকার তাগিদে গত ৮ দিন আগে এসেছিলেন ঢাকায়। রিকশার প্যাডেল ঘুরিয়ে জীবিকা নির্বাহের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন তিনি কিন্তু হতাশ হয়েই ফিরে যেতে হচ্ছে তাকে।

রংকেশ্বর

বলেন, গত ৮ দিন আগে ঢাকায় এসেছিলাম। রিকশা চালিয়ে সংসার চালাবো বলে ভেবেছিলাম কিন্তু যখনই বের হই তখনই বৃষ্টি নামে। বৃষ্টিতে রিকশা চালিয়ে অসুস্থ হয়ে গেছি। এখন রিকশার প্যাডেল ঘুরাতে খুব কষ্ট হয়, কুলিয়ে উঠতে পারি না। তাই বাড়ি চলে যাব।

তিনি বলেন, ভাড়ায় রিকশা নিয়েছি। প্রতিদিন রিকশার ভাড়া বাবদ ১০০ টাকা করে দিতে হয়। এছাড়া নিজের থাকা-খাওয়ার খরচ ছাড়া প্রতিদিন কিছু টাকা থাকে। সব খরচ বাদ দিয়ে এই ৮ দিনে সেই টাকা জমিয়েছিলাম। টাকা একজনকে ধার দিয়েছিলাম কিন্তু সে টাকা দিচ্ছে না। টাকা দিলেই চলে যাব।

রংকেশ্বর জানান, তার ৩ মেয়ে আর ১ ছেলে। দুই মেয়ের বিয়ে দিয়েছেন। এক মেয়ে এবার এসএসসি পরীক্ষা দিবে। এছাড়া একমাত্র ছেলে পঞ্চম শ্রেণিতে পড়াশোনা করছে।

তিনি বলেন, বড় মেয়েটাকে বেশিদূর পড়াতে পারিনি কিন্তু মেঝো মেয়ে ডিগ্রি প্রথম বর্ষ পর্যন্ত পড়েছিল। বিয়ে হয়ে যাওয়ার পর আর পড়াশোনা করেনি।

তিনি আরও বলেন, আগে গ্রামে ভ্যান চালাতাম। এছাড়া বর্গা জমি চাষ করতাম। এ নিয়েই চলছিল সংসার। পরে এগুলো ছেড়ে ঢাকায় এসে রিকশার প্যাডেল ধরেছিলাম। তবে অসুস্থ হয়ে আবার ফিরে যেতে হচ্ছে। সুস্থ হয়ে গ্রামে আবার বর্গা জমি চাষ করবো।

আস/এসআইসু

Facebook Comments