জকিগঞ্জের মাসুম বাজারে পাওনা টাকা নিয়ে দুই পক্ষের সংঘর্ষ: আহত-১৫

154

স্টাফ রিপোর্টার

সিলেটের জকিগঞ্জ উপজেলার মাসুম বাজারে দোকানের পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে উভয় পক্ষের প্রায় ১৫ জন আহত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) সকাল ১১ টার দিকে উপজেলার মাসুম বাজারে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে জকিগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে। এ সময় উভয় পক্ষের বেশ কয়েকজন লোককে পুলিশ আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

স্থানীয়রা জানান, মাসুম বাজারে অবস্থিত পীরনগর গ্রামের শামীম আহমদের চায়ের দোকান থেকে গদাধর গ্রামের মৃত বদরুল হকের ছেলে মারজান রশীদ সুমন (১৪) বুধবার রাতে একটি ঠান্ডা বাকিতে কিনে নিতে চাইলে দোকানে থাকা শামীম আহমদের ছেলে আব্দুল্লাহ আল মিনহাজ (২৫) পূর্বের বাকি টাকা দেওয়ার জন্য বলে। এনিয়ে উভয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটি শুরু করলে দুই পক্ষের লোকজন জড়ো হয়ে মারমুখি হয়ে উঠেন।

পরে বাজার কমিটির লোকজন তাদের শান্ত করে বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টায় আপোষ বৈঠকের জন্য উভয় পক্ষকে ডাকেন। সকাল ১১ টার দিকে উভয় পক্ষ বাজারে উপস্থিত হয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। এতে উভয় পক্ষের প্রায় ১৫ জন লোক আহত হন।

আহতরা হলেন, পীরনগর গ্রামের মৃত সাজ্জাদ আলীর ছেলে তাজ উদ্দিন লুকুছ (৫৫), মৃত আব্দুল জলিলের ছেলে জবরুল ইসলাম (১৮), মৃত জুলমত খানের ছেলে ইছুব আলী (৬৫), আব্দুল খালিকের ছেলে আলমগীর হক (২৪), আব্দুস শহীদের ছেলে তাজুল ইসলাম (২০), মৃত কদরিছ আলীর ছেলে বাবুল হক (৫০), মৃত আকদ্দছ আলীর ছেলে রুহেল আহমদ বটলা (২৬), মতু মিয়ার ছেলে শাহিন আহমদ (৩১), আব্দুর রহিমের ছেলে আজির উদ্দিন (৪০), শামীম আহমদের ছেলে আব্দুল্লাহ আল মিনহাজ (২৫), গদাধর গ্রামের মৃত বদরুল হকের ছেলে মারজান রশীদ সুমন (১৪), আমিনুর রশীদ জুনু (২৮), মৃত বশির উদ্দিনের ছেলে দেলোয়ার হোসেন (৩২), এমাদ উদ্দিন (৫৪) ও মৃত তজম্মুল হকের ছেলে জামাল আহমদ (২৭)।

আহতরা জকিগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা করছেন বলে উভয় পক্ষের লোকজন জানান।
এ ঘটনায় জকিগঞ্জ থানায় উভয় পক্ষ পাল্টাপাল্টি অভিযোগ দাখিল করেছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। তবে এখন পর্যন্ত কোন মামলা রেকর্ড হয়নি।

আস/এসআইসু

Facebook Comments