জ্যোতিষ বাণী এড়াতে পেরেছে বাংলাদেশ, পারেনি ভারত!

190

আলোকিত সকাল ডেস্ক

আইসিসির আয়োজনে দ্বাদশ বিশ্বকাপ শুরুর আগে বোমা ফাটিয়েছিলেন দুই জোতিষী। একজন নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক ব্রেন্ডন ম্যাককালাম। অন্যজন ভারতের বিখ্যাত জ্যোতিষী গ্রিনস্টোন লবো।

বিশ্বকাপ শুরুর আগে ব্রেন্ডন ম্যাককালাম ইনস্টাগ্রামে ভবিষ্যদ্বাণী করেন, ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে গ্রুপপর্বে প্রতিটি দল একে-অপরের মুখোমুখি হবে। এ হিসেবে প্রতিটি দল খেলবে ৯টি করে ম্যাচ। বাংলাদেশ ৯ ম্যাচের মধ্যে জিতবে মাত্র একটি ম্যাচ । নয় প্রতিপক্ষের মধ্যে বাংলাদেশ কোন দলের বিপক্ষে জিতবে সেটাও জানিয়েছিলেন কিউই তারকা। তার মতে, একমাত্র শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেই জিতবে টাইগাররা।

অন্যদিকে, ভারতীয় জ্যোতিষী গ্রিনস্টোন লবো দাবি করেন, ফেবারিট তকমা লাগানো থাকলেও বিশ্বকাপ জিতবে না টিম ইন্ডিয়া। তিনি দাবি করেন, জ্যোতিষ শাস্ত্র ঘেঁটেই তিনি এমন ভবিষ্যদ্বাণী করছেন। তিনি দাবি করেন, ভারতীয় দল এবার বিশ্বকাপ জিততে পারবে না। দলটির অধিনায়ক বিরাট কোহলির জন্ম ১৯৮৬, ১৯৮৭ ও ১৯৮৮-এর মাঝে। এমন অবস্থায় ধোনি যদি স্কোয়াডে না থাকত তবে বিশ্বকাপ জিততে পারতো ভারত। লবো জানান, ধোনি বরাবরই দলের জন্য সৌভাগ্য বয়ে এনেছেন। কিন্তু এবার বাতাস উল্টো দিকে বইবে!

শুধু ধোনি-কোহলিই নন, মেন ইন ব্লুদের এবার বিশ্বকাপ না জেতার সম্ভাব্য কারণ কোচ রবি শাস্ত্রী। লোবোর মতে, রবির রাশি ভালো। ইতিমধ্যে সে অনেক কিছু জিতেছে। তবে বিশ্বকাপ শিরোপা জেতার জন্য যা থাকা দরকার, শাস্ত্রীর মধ্যে এখন তা নেই।

তো বিশ্বকাপের প্রথম সেমিফাইনালের ফলাফলের পর এখন এ কথা বলার সুযোগ তৈরি হয়েছে যে, ক্রিকেট ছেড়ে নব্য জোতিষী বনে যাওয়া ব্রেন্ডন ম্যাককালামকে মাঠে পারফর্ম করে মিথ্যে প্রমাণ করতে পেরেছে বাংলাদেশ। তবে স্বদেশী জোতিষীকে মিথ্যে প্রমাণ করতে ব্যর্থ হয়েছে শিরোপা প্রত্যাশী ভারত।

মাঠের খেলায় বাংলাদেশ জয় পায় দক্ষিণ আফ্রিকা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও আফগানিস্তানের বিপক্ষে। বৃষ্টির জন্য খেলা মাঠে না গড়ানোয় পয়েন্ট ভাগাভাগি হয় শ্রীলংকার সঙ্গে। আর বুধবার প্রথম সেমিফাইনাল জিতে ফাইনালে চলে যাওয়া নিউজিল্যান্ড হারতে হারতে রক্ষা পায় বাংলাদেশের কাছে। এভাবেই ম্যাককালামকে মিথ্যে প্রমাণ করেন টাইগাররা।

অন্যদিকে, গ্রুপপর্বে প্রায় প্রতিটি ম্যাচেই বিপক্ষ দলকে উড়িয়ে দিয়ে আত্মবিশ্বাসের তুঙ্গে থাকা ভারতকে ফাইনাল থেকে ‘আউট’ করে দিয়ে ভারতীয় জোতিষীর ভবিষ্যতবাণীকে সত্য প্রমাণ করলো নিউজিল্যান্ড।

আস/এসআইসু

Facebook Comments