তবে কি ক্ষোভেই ফেসবুক পেজ ডিসাবল করলেন তামিম!

347

আলোকিত সকাল ডেস্ক

বাংলাদেশ ক্রিকেটের মারকুটে একজন ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল কিন্তু চলমান ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে এক প্রকার ব্যর্থ ছিলেন বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান। বিশ্বকাপের ৮ ম্যাচের মধ্যে ৬২ ও ৪৮ রানের দুইটি ইনিংস ছাড়া আর কোন ম্যাচেই হাসেনি তামিম ব্যাট। এ তো গেলো তার বিশ্বকাপের ব্যাটিং পারফরম্যান্স।

ব্যাট হাতে যেমন ব্যার্থ ছিলো ঠিক ফিল্ডিয়েও ব্যর্থ ছিলেন তিনি। বাংলাদেশেকে সেমিফাইনালে যেতে হলে ভারতের বিপক্ষে জয়ের কোন বিকল্প ছিলো না। আর সেই ম্যাচে রোহিত শর্মাকে ৯ রানে জীবন দেন তামিম। জীবন পেয়ে বাংলাদেশী বোলাদের উপর তাণ্ডব চালিয়ে টানা বিশ্বকাপের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি তুলেন শর্মা। দিনশেষে ভারতের রানের চাপায় চাপা পরে বাংলাদেশ। ভারতের বিপক্ষে ২৮ রানে হেরে যায় টাইগররা।

তামিমের এমন বাজে ফিল্ডিংয়ের পর থেকেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আক্রমণের শিকার হচ্ছিলেন তিনি। নিজেদের টাইমলাইনের পাশাপাশি তামিমের ফেসবুক পেজ, ইনস্টাগ্রাম এবং টুইটারেও বাজে মন্তব্য করতে দেখা যায় অনেককেই। এমনকি বাদ যায়নি তার পরিবারও। দেশ সেরা এই ওপেনারের ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করা তার ছেলে আরহাম ইকবালের ভিডিওতেও বাজে মন্তব্য করতে দেখা গেছে।

এতকিছুর মধ্যে এবার তামিমের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজটিই আর পাওয়া যাচ্ছে না। এ নিয়ে ফেসবুকে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে। কেউ কেউ বলছেন তামিমের পেজটি রিপোর্ট করে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। অনেকেই বলেন প্রচণ্ড বাজে মন্তব্য আশায় পেজটি আপাতত বন্ধ রাখা হতে পারে।

তামিমের পারফরম্যান্স নিয়ে টাইগার কোচ রোডস বলেন, আমি বলব, তামিমের পারফরম্যান্সে আন্তরিকতা ছিল। নিজের সেরা চেষ্টাটা করেছে। ক্যাচ মিস ক্রিকেটেরেই অংশ। যদিও বাংলাদেশের অন্যতম সেরা ফিল্ডার হিসেবে তামিম নিজেকে আগেই প্রমাণ করেছেন। আর ব্যাটসম্যান তামিম তো টেস্ট, ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি তিন ফরম্যাটে সবচেয়ে সেরা।

আস/এসআইসু

Facebook Comments