দর্শকের রুচি ও পছন্দসই গান তৈরি হচ্ছে

184

আলোকিত সকাল ডেস্ক

এ প্রজন্মের ব্যস্ত সংগীত শিল্পীদের একজন দিলশাদ নাহার কনা। দীর্ঘ সময় ধরেই উপহার দিয়ে আসছেন জনপ্রিয় সব গান। আজ বাংলাভিশনের পর্দায় ‘মিউজিক ক্লাবে’ অতিথি হয়ে আসবেন তিনি। বিভিন্ন বিষয়ে কথা হলো তার সঙ্গে…
দর্শকের রুচি ও পছন্দসই গান তৈরি হচ্ছে

আজ বাংলাভিশনের ফোনলাইভ স্টুডিওতে মিউজিক ক্লাব নামের একটি অনুষ্ঠানে হাজির হব। এতে দর্শকদের অনুরোধের পাশাপাশি নিজের পছন্দের কিছু গান গাইব। এ ছাড়াও আমার জীবনের কিছু গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা দর্শকদের সঙ্গে শেয়ার করব।

রুচিসম্মত গান…

অনেকেই বর্তমান গান নিয়ে নেতিবাচক কথা বলে। তবে আমার কাছে মনে হয় এখন দর্শকের রুচি ও পছন্দসই গান তৈরি হচ্ছে। এবং গানগুলো দর্শক বেশ ভালোভাবেই গ্রহণ করছে। একটি বিষয় মাথায় রাখতে হবে, ভালো গান ও কম ভালো গান সবসময়ই তৈরি হয়েছে। তবে দর্শকরা ভালো গানই শোনে। এটা বার বার প্রমাণিত হয়েছে।

জিঙ্গেল ও পেস্নব্যাক…

সম্প্রতি একটি মিউজিক্যাল বিজ্ঞাপনে কণ্ঠ দিয়েছি। এতে আমার গানে প্রথমবারের মতো ঠোঁট মেলাতে দেখা যাবে জনপ্রিয় অভিনেত্রী অপু বিশ্বাসকে। এ ছাড়াও হাতে আরও কিছু সিনেমার গান রয়েছে। পর্যায়ক্রমে সেগুলোতে কণ্ঠ দিব।

একসঙ্গে গান…

একসঙ্গে সবাই মিলে একই মঞ্চে গান গাইতে ভালো লাগে। এতে একজনের সঙ্গে আরেক শিল্পীর মেলবন্ধন তৈরি হয়। অনেক শিল্পী মিলে কদিন আগে বিশ্বসংগীত দিবস উপলক্ষে শিল্পকলায় আমরা একসঙ্গে গান গেয়েছি।

অনুপ্রেরণা…

আমার সংগীত শিল্পী হয়ে ওঠার পিছনে অনেকই অনুপ্রেরণা হিসাবে কাজ করেছেন। তার মধ্যে সদ্য প্রয়াত শাহানাজ রহমাতুলস্না অন্যতম। তার গান ছাড়া তো গান শেখাই হতো না। তার ‘একতারা তুই দেশের কথা বল’, ‘একবার যেতে দে না আমার ছোট্ট সোনার গাঁয়ে’- এসব গান তখন আমাদের মুখে মুখে। আর ‘এক নদী পেরিয়ে’ এই গান গাইতে না পারলে তো বদনাম হয়ে যেত, গাইতে পারে না বলে। তাই ছোট থেকেই তিনি ছিলেন আমার অনুপ্রেরণার আরেক নাম।

আস/এসআইসু

Facebook Comments