ধামরাইয়ের ঐতিহ্যবাহী রথযাত্রার প্রস্তুতির কাজ চলছে পুরো দমে

198

মো: মনোয়ার হোসেন রুবেল (ধামরাই প্রতিনিধি)

ঢাকার ধামরাইয়ে এশিয়া মহাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম প্রায় ৪’শ বছরের ঐতিহ্যবাহী রথযাত্রা উৎসব ও মেলা উপলক্ষে প্রস্তুতি গ্রহণ করছে ধামরাই উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদ ও যশোমাধব মন্দির পরিচালনা কমিটিসহ কয়েকটি উপ-কমিটি। ইতোমধ্যে ঐতিহাসিক রথের প্রয়োজনীয় মেরামতের কাজ চলছে পুরো দমে।

সোমবার (১ জুলাই) ধামরাইয়ের যাত্রাবাড়ী এলাকায় ঘুরে দেখা যায়, রথ মেরামতের কাজ করছেন প্রায় ১০ জনের মতো একদল কাঠমিস্ত্রী। তারা কেউ কাঠ কাটছেন, কেউ প্রলেপ দিচ্ছেন, কেউ বা অবকাঠামোর ভেঙে যাওয়া অংশ নতুন করে বানাচ্ছেন। আবার পাশেই রঙের কাজ করছেন কয়েকজন মিলে।

কথা হয় কাঠমিস্ত্রী সনজিৎ সেনের সাথে। তিনি জানান, গত ২৫ বছর ধরে প্রতিবছর এই সময়ে রথ মেরামতের কাজ করে আসছেন তিনি৷ তার বাবা-দাদারাও একটা সময় এই কাজ করেছেন। রথ মেরামতের সঙ্গে যুক্ত হতে পেরে তিনি গর্বিত বলেও জানান।

আরেক মিস্ত্রী দেবেন্দ্র সেন বলেন, আমরা গত ৭ দিন ধরে পালাক্রমে ৮-১০ জন এই রথের অবকাঠামো উন্নয়নের কাজ করছি। রথযাত্রার এক দু’দিন আগেই এই কাজ শেষ হয়ে যাবে। ইতোমধ্যে আমাদের বেশিরভাগ কাজ শেষ হয়েছে। যেটুকুতে কাঠের কাজ শেষ হয়েছে সেখানে রঙের কাজ করছে মিস্ত্রীরা।
স্থানীয় বাসিন্দা আশ্মিন বর্মন বলেন, রথমেলা দেখতে প্রতিবছর এখানে দেশ-বিদেশ থেকে অনেক দর্শনার্থী আসেন। ভারতের বিভিন্ন রাজ্যসহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ থেকে দেখতে আসেন এই রথযাত্রা। তাই প্রস্তুতিটাও একটু বড় আঙ্গিকে নিতে হয়।

তবে, তিনি সড়ক অপ্রতুলতার অভিযোগ এনে বলেন, ধামরাইয়ে শত শত বছর ধরে রথযাত্রা হচ্ছে। বাইরে থেকেও প্রচুর লোক আসে এখানে। কিন্তু ধামরাইয়ে রাত্রিযাপনের তেমন কোন ব্যবস্থা নেই। ফলে, দর্শনার্থীদের রাত থাকার মতো গেস্ট হাউস তৈরি করা গেলে আরো অনেকেই আকৃষ্ট হতে পারতো আমাদের এই মেলায়।

যশোমাধব মন্দির পরিচালনা কমিটির কার্যকরী সদস্য ও রথযাত্রা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রাজীব প্রাসাদ সাহা বলেন, আগামী (৪ জুলাই) বৃহস্পতিবার রথযাত্রা শুরু হবে। তারপর উল্টো রথযাত্রা শুরু হবে ১২ জুলাই, আর মেলা চলবে পুরো এক মাসব্যাপী। এশিয়ার দ্বিতীয় বৃহত্তম এই রথযাত্রাকে সফল করতে আমরা প্রতিবছর ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করি। এবছরও ইতোমধ্যে রথ সংস্কারের কাজ প্রায় শেষের পর্যায়ে। এছাড়াও মেলার নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ঢাকা জেলার পুলিশ পরিদর্শক, ধামরাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, ধামরাই থানার পুলিশ পরিদর্শক, স্থানীয় সাংসদ, পল্লীবিদ্যুৎসহ মেলা সংশ্লিষ্ট সবার সঙ্গে দফায় দফায় অবহিতকরণ ও বৈঠক করা হয়েছে। মেলায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকার সম্মতি জানিয়েছেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এমপি।

এ সময় তিনি প্রতি বছরের মতো এবারো আনন্দঘন পরিবেশে উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্যদিয়ে রথযাত্রা সম্পন্ন হবে বলে আশা প্রকাশ করেন।

আস/এসআইসু

Facebook Comments