নতুনভাবে শুরু করতে চাই

253

আলোকিত সকাল ডেস্ক

একটু ভয়ে আছি। প্রথমত এটা ফিল্ম, সারাজীবন আর্কাইভে থাকবে। আমি বেঁচে থাকি বা না থাকি এটি থেকে যাবে। আর দ্বিতীয়ত হলো, শাকিব খান। তৃতীয়ত হলো, বদিউল আলম খোকন। উনি এমন একজন পরিচালক যার কথা আমি ছোটবেলা থেকে শুনে আসছি। এই মুহুর্তে নিজেকে ভাগ্যবতী মনে করছি কিন্তু আমার দায়িত্ব অনেক বেড়ে গেছে। কারণ প্রযোজক-পরিচালক আমার ওপর বিশ্বাস রেখেছেন। দেখা যাক কী হয়।

প্রস্তুতি পর্ব নিয়ে বলুন—
প্রস্তুতি যে খুব ভালো ভাবে নিচ্ছি সেটা কিন্তু না। পরিচালক সাহেব বেশ কয়েকটি ছবি দেখতে বলেছেন, সেগুলো দেখছি। পুরো স্ক্রিপ্ট হাতে পাওয়ার পর আরো ভালো ভাবে প্রস্তুতি নিতে পারব।

অভিনয়ে কেন?
আসলে আমি প্রথম থেকেই অভিনেত্রী হিসেবে আসতে চেয়েছিলাম। কিন্তু স্পোটর্স আমাকে কেন জানি খুব বেশি টানে। তার কারণে উপস্থাপনাতে গেলেও স্পোর্টসেই ছিলাম। অন্যান্য মিডিয়াতে আমি আসলে কাজ করতে চাইনি। আর অভিনয় তো অভিনয়। আমার মা বলেন, আমি নাকি ছোটবেলা থেকেই অভিনয় করতে করতে এতো বড় হয়েছি। সেদিক থেকে মনে হয়, অভিনয় মনের ভেতরে একটু একটু আছে। এটাকে এখন বাহিরে বের করার ইচ্ছা।

দুই পর্দার পার্থক্য—
আমি ছোটপর্দায় কাজ করেছি সে অভিজ্ঞতাটা ভুলে যেতে চাই। আমি আমার পরিচালককে বলেছি, একটা কাদামাটি যেমন থাকে আপনি আমাকে তেমন ভাববেন। আমাকে আপনার মতো করে গড়ে নিবেন। মানুষ অভিজ্ঞতা ধরে সামনে এগিয়ে যায় কিন্তু আমি ছোটপর্দার সব অভিজ্ঞতা ভুলে যেতে চাই। দুই পর্দার কাজের মধ্যে অনেক পার্থক্য। সেটা আমি একজন দর্শক হিসেবে যখন দেখি তখন বুঝতে পারি। তাই ছোটপর্দাকে পিছনে ফেলে আসতে চাই। নতুন ভাবে শুরু করতে চাই, একেবারেই নতুন ভাবে।

এই মুহূর্তের ভাবনা—
এই মুহুর্তে ফিল্ম ফিল্ম এবং ফিল্ম নিয়ে ভাবছি। আপাতত এর বাইরে কিছু মাথায় নেই। তার জন্য পরিচালকের সাজেস্ট করা ফিল্মগুলো দেখছি। পাশাপাশি আমি নিজে থেকে অনেক ফিল্ম দেখছি। স্ট্যাডি করছি, অভিনয়, ক্যামেরা অ্যাংগেল নিয়ে জানার চেষ্টা করছি।

শাকিব খান প্রসঙ্গে বলুন—
ড্রিম বয়। হাহাহা। আমার মনে হয় শাকিব খান আমারই না, সারাদেশে যত মেয়ে আছে তাদের ড্রিম বয়। বিস্তারিতভাবে বলতে গেলে, ব্যক্তি শাকিব খানকে আমি এখনো ভালোভাবে জানি না। কারণ তার সঙ্গে আমার এখনো দেখা হয়নি। আর পারর্ফমার শাকিব খানকে নিয়ে যদি বলি তাহলে বলতে হয়, আমরা সবাই জানি উনি নাম্বার ওয়ান আমাদের ইন্ডাস্ট্রিতে। উনি আসলেই বেস্ট একজন। এখন আপাতত এতটুকুই, বাকিটা উনার সঙ্গে কাজের পর বলতে পারব।

বড়পর্দা নিয়ে পরিকল্পনা—
এখন ‘আগুন’ ছবিটি নিয়েই আমার সব পরিকল্পনা। আমি আসলে হুট করেই চলচ্চিত্রের সঙ্গে যুক্ত হয়ে গিয়েছি। আজ থেকে দশদিন আগেও আমার মাথায় চলচ্চিত্র নিয়ে কোনো পরিকল্পনা ছিল না। আমার মনে হয়, আল্লাহ মানুষকে সঠিক সময়েই সবকিছু দেয়। হয়ত আমার জন্য ‘আগুন’ চলচ্চিত্রটিতে কাজ করার সঠিক সময় এখন। তাই আমি করতে যাচ্ছি। তারপর কোনো চলচ্চিত্রের কাজ আসলে অবশ্যই সবকিছু মিললে করব। আর যদি হারিয়ে যাওয়া কথা বলেন তাহলে আমি এতটুকুই বলব, আমি আমার যথাসাধ্যে চেষ্টা করব। তারপর বাকিটা ভাগ্যের ওপর।

দর্শকের উদ্দেশ্যে বলুন—
আমাকে ভালোবাসবেন। সাপোর্ট করবেন। আমরা শিল্পীরা আপনাদের ভালোবাসা ছাড়া অসহায়। আপনাদের ভালোবাসা ছাড়া আমরা নিজেদের স্বার্থক বলতে পারব না। তাই আপনাদের বলছি, আমাদের ভালোবেসে যাবেন। যদি কোনো ভুল থাকে তাহলে ধরিয়ে দিবেন।

আস/এসআইসু

Facebook Comments