বিবাহবহির্ভূত সম্পর্ক : সাজার ৪৯৭ ধারা কেন অবৈধ নয়

182

আলোকিত সকাল ডেস্ক

বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কের সাজা সংক্রান্ত দণ্ডবিধির ৪৯৭ ধারা কেন অবৈধ এবং অসাংবিধানিক ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন উচ্চ আদালত। আগামী ২১ দিনের মধ্যে আইন মন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্ট বিবাদীদের এ রুলের উত্তর দিতে বলা হয়েছে।

এ সংক্রান্ত রিটের শুনানি নিয়ে সোমবার (৮ জুলাই) বিচারপতি সৈয়দ রেফাত আহমেদ ও বিচারপতি ইকবাল কবিরের সমন্বয়ে গঠিত উচ্চ আদালতের বেঞ্চ এ রুল জারি করেন।

হাইকোর্টে রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার অনিক আর হক ও অ্যাডভোকেট ইশরাত হাসান। আর আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ও ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল কাজী জিনাত হক।

চলতি বছরের ফেব্রুয়ারির ১১ তারিখে বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কের দণ্ড সংক্রান্ত দণ্ডবিধির ৪৯৭ ধারার সংশোধন ও বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে উচ্চ আদালতে রিট করা হয়। রিটটি করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট ইশরাত হাসান।

ইশরাত হাসান জানান, বাংলাদেশ দণ্ডবিধির ৪৯৭ ধারা অনুযায়ী কোনও স্ত্রী কারও সঙ্গে বিবাহের বাইরে কোনো সম্পর্কে জড়িয়ে পড়লে শুধু সেই ব্যক্তির শাস্তির বিধান রয়েছে। অথচ স্ত্রীর বিরুদ্ধে স্বামীর কিছুই করার নেই। একইভাবে স্বামী কারও সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়লে স্বামী কিংবা ওই নারীর বিরুদ্ধে স্ত্রী ব্যবস্থা নিতে পারবেন না।

সুপ্রিম কোর্টের এই আইনজীবী আরও জানান, তাছাড়া দণ্ডবিধির ৪৯৭ ধারা অনুসারে, স্বামী যদি কোনও বিধবা বা অবিবাহিত নারীর সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন এবং স্ত্রী যদি স্বামীর অনুমতি সাপেক্ষে সম্পর্ক করেন তা আইনে বৈধতা দেওয়া হয়েছে। তাই ধারাটি সংবিধানের ২৭, ২৮ ও ৩২ অনুচ্ছেদের সঙ্গে সাংঘর্ষিক এবং বৈষম্যমূলক হওয়ায় রিটটি করেছেন বলে জানান ওই আইনজীবী।

আস/এসআইসু

Facebook Comments