বৃদ্ধের লালসার শিকার শিশু

299

আলোকিত সকাল ডেস্ক

পঞ্চান্ন বছর বয়সী এক বৃদ্ধের লালসার শিকার হলো ছয় বছরের শিশু। নির্যাতনে যন্ত্রণায় কাতর হয়ে অসহায় শিশুটি পরিবারের কাছে সব খুলে বলে। এমন ঘৃণ্য ঘটনা ঘটেছে চুয়াডাঙ্গার সদর উপজেলায়। কক্সবাজারে ৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণ করেছে মোয়াজ্জিন। মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার আমলসার ইউনিয়নের এক নারী রাতভর গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন বলে দাবি ঐ নারীর। ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলায় ৭ম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। এদিকে, নারায়ণগঞ্জে কাজের কথা বলে ছাত্রীদের ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করতেন বলে আদালতে স্বীকার করে জবানবন্দি দিয়েছেন সেই শিক্ষক আল আমিন । মানিকগঞ্জে ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টা মামলায় গৃহশিক্ষক আটক করেছে পুলিশ।

চুয়াডাঙ্গা ; চুয়াডাঙ্গার সদর উপজেলায় চকলেট দেওয়ার লোভ দেখিয়ে ছয় বছরের এক শিশুকে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠেছে। শিশুটিকে গত বৃহস্পতিবার রাতে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী বলছেন, শিশুটির বাবা সদর উপজেলার পদ্মবিলা ইউনিয়নের ভ্যানচালক। ওই ইউনিয়নে শ্বশুরবাড়িতে থাকেন আবদুল মালেক (৫৫) নামে এক ব্যক্তি । বুধবার দুপুরে বাড়ির পাশে খেলা করছিল মেয়েটি। ওই সময় আবদুল মালেক চকলেট দেওয়ার লোভ দেখিয়ে শিশুটিকে তার ঘরে নেন। বাড়িতে লোকজন না থাকার সুযোগে মালেক শিশুটিকে ধর্ষণ করেন। বিষয়টি কাউকে না জানাতে শিশুটিকে ভয়ভীতি দেখান তিনি।

শিশুটির পরিবার জানায়, সেদিন দুপুরে শিশুটিকে গোসল করাতে গিয়ে তার দাদি রক্তের দাগ দেখতে পান। শিশুটির কাছে জানতে চাইলেও ভয়ে বাড়ির কাউকে কিছু বলেনি সে। বুধবার রাতে যন্ত্রণায় কাতর হয়ে পড়ে শিশুটি। একপর্যায়ে বৃহস্পতিবার সকালে বাড়ির লোকজনের কাছে পুরো ঘটনা খুলে বলে। শিশুটি জানায়, এর আগেও একাধিকবার তার ওপর নির্যাতন চালানো হয়েছে। স্থানীয় ব্যক্তিরা আরও বলছেন, বৃহস্পতিবার দুপুরেও শিশুটিকে ফুসলিয়ে ঘরে ডেকে নেন আবদুল মালেক। এ সময় মালেকের দুই পুত্রবধূ শিশুটির মাকে গিয়ে এ কথা জানান। শিশুটির মা ওই বাড়িতে গেলে মালেক কৌশলে পালিয়ে যান।

নারায়ণগঞ্জ : নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লায় বাইতুল হুদা ক্যাডেট মাদরাসার ১২ ছাত্রীকে নিপীড়নের অভিযোগে গ্রেফতার মাদরাসা অধ্যক্ষ আল আমিন দোষ স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন। গত বৃহস্পতিবার নারায়ণগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ কাউছার আলমের আদালতে দোষ স্বীকার করে জবানবন্দি দেন তিনি। নারায়ণগঞ্জ কোর্ট পুলিশের পরিদর্শক হাবিবুর রহমান বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে পাঁচদিনের রিমান্ড শেষে আদালতে হাজির করা হলে অধ্যক্ষ আল আমিন দোষ স্বীকার করে জবানবন্দি দেন। এরপর আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

মাগুরা : মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার আমলসার ইউনিয়নের এক নারী রাতভর গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এমন অভিযোগ এনে ওই নারী শ্রীপুর থানায় মামলা করতে গেলে থানার ওসি মামলা না নিয়ে সারা দিন তাকে বসিয়ে রাখেন এবং উল্টো তার বিরুদ্ধেই মামলা ঠুকে দেয়ার ভয় দেখান বলে অভিযোগ উঠেছে। ওই নারীর দাবি, দিপুল নামে পরিচিত এক যুবক দরজায় কড়া নাড়লে তিনি দরজা খুলে দেন। কিন্তু দিপুল একই গ্রামের মাজেদুল ও আশরাফুল নামে আরও দুই যুবককে নিয়ে ঘরে ঢুকে তাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করেন। সকালে ওই গৃহবধূ এ ঘটনায় মামলা করতে শ্রীপুর থানায় গেলে থানার ওসি মাহবুবুর রহমান তাকে সন্ধ্যা পর্যন্ত বসিয়ে রাখেন। এমনকি ডাক্তারি পরীক্ষার অনুরোধ জানালেও তিনি সেই ব্যবস্থা না করে ভয় দেখিয়ে তাকে থানা থেকে বের করে দেন। এ বিষয়ে শ্রীপুর থানার ওসি মো. মাহবুবুর রহমান বলেন, ওই তিন যুবক ধর্ষণ করবে কেন? ওই নারীর সঙ্গে তার স্বামীর এক বন্ধুর সম্পর্ক আছে। যে ঘটনা জানতে পেরে ওই যুবকরা রাতে তার কাছে ২০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেছিল বলে শুনেছি। তবে ওই নারী ধর্ষণের অভিযোগ নিয়ে থানায় এলেও কোনো সত্যতা না পাওয়ায় মামলা নেয়া হয়নি।

কক্সবাজার : মসজিদের মোয়াজ্জিন ঝাড়ু দেয়ার কথা বলে ডেকে নিয়ে ৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণ করেছে। উখিয়ার রাজাপালং ডেইলপাড়া মসজিদের ভিতর বৃহস্পতিবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। শিশুর চাচার ফরিদ আলম জানান, বৃহস্পতিবার দুপুর ১২ টায় স্থানীয় ডেইল পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ঘরে আসার পথে দ্বিতীয় শ্রেণীর ছাত্রীকে (৭) মসজিদে ঝাড়ু দেয়ার কথা বলে ডেকে নিয়ে ডেইলপাড়া মসজিদের মোয়াজ্জিন হাফেজ নুরুল আমিন মসজিদের ভেতর ঢুকিয়ে ধর্ষণ করেছে। পরে মেয়েটি রক্তাক্ত অবস্থায় কান্না করতে করতে ঘরে এসে মাকে সব খুলে বলে। ধর্ষকের পক্ষে এক লাখ টাকা দিয়ে সমঝোতার চেষ্টা করছে একটি মহল। উখিয়া থানা ওসি (তদন্ত) জানান, শিশু ধর্ষণের খবর পেয়ে অভিযুক্ত ধর্ষককে ধরতে অভিযান চালানো হচ্ছে। পালিয়ে যাওয়ায় আটক করা সম্ভব হয়নি।

মানিকগঞ্জ : মানিকগঞ্জে চতুর্থ শ্রেণির এক শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে মো. রুবেল ওরফে রোমেল (৩০) নামের এক গৃহশিক্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গতকাল দুপুরে পাঁচ দিনের রিমান্ড চেয়ে তাকে আদালতে পাঠানো হয়েছে এবং মেয়েটিকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গৃহশিক্ষক মো. রুবেল সদর উপজেলার বেতিলা ইউনিয়নের বাঙ্গরা গ্রামের মৃত তারা মিয়ার ছেলে। গৃহ শিক্ষকতা ছাড়াও তিনি বেতিলা দুই নম্বর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দপ্তরী ও নৈশপ্রহরী হিসেবে দায়িত্বরত ছিলেন। এ ঘটনায় গতকাল রাতে মেয়েটির বাবা বাদী হয়ে মানিকগঞ্জ সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

ঝালকাঠি : ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলায় ৭ম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে ফুফাত ভাইয়ের বিরুদ্ধে। ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে মঠবাড়ি ইউনিয়নের পুখরীজনা গ্রামের কামাল হোসেনের ছেলে এমরানের (২৮) নামে মামলা হয়েছে। মামলায় বাদী ওই ছাত্রীর বাবা জানান, বৃহস্পতিবার ভোরে এমরান তার মেয়েকে ভয়ভীতি দেখিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এ কথা কারও কাছে না বলার জন্য হুমকিও দেয়। ভিকটিম ও এমরান সম্পর্কে মামাত-ফুফাত ভাইবোন।

আস/এসআইসু

Facebook Comments