ব্রাজিলের সত্যিকারের ‌সেভেন আপ অর্জন

207

আলোকিত সকাল ডেস্ক

মনে আছে ২০১৪ বিশ্বকাপের ব্রাজিল-জার্মানির সেমিফাইনাল ম্যাচের কথা? সেদিন কী ভয়াবহ-ই-না ছিল জার্মান আর কতটা অসহায় ছিল স্বাগতিক ব্রাজিল। ৭-১ গোলে জার্মানির কাছে হেরে নিজের ঘরের মাঠেই বিশ্বকাপ মঞ্চ থেকে ছিটকে পড়ে পাঁচ বারের চ্যাম্পিয়নরা।

এ নিয়ে কম কথা শুনতে হয়নি সেলেসাওদের। পাঁচ বছরের ব্যবধানে এখনও সে ম্যাচ নিয়ে ট্রলের শিকার হচ্ছে ব্রাজিলিয়ানরা। শুধু কি ব্রাজিলের খেলোয়াড়রাই? না বিশ্বজুড়ে সকল ব্রাজিল সমর্থকই এই ৭ গোল হজমের ট্রলের শিকার হচ্ছে প্রতিনিয়ত।

কোমল পানীও সেভেন আপের নামে নামকরণ করা হয় ব্রাজিল-জার্মানির সে ম্যাচকে। তবে এবার সত্যি সত্যি ‌‘সেভেন আপ’ অর্জন করেছে ব্রাজিল। একুশ শতকে এসে একমাত্র ব্রাজিলই জিতেছে সাতটি বড় আন্তর্জাতিক শিরোপা। যাকে ‘সেভেন আপ’ বলছে ব্রাজিলিয়ানরা।

একুশ শতকে ব্রাজিলের প্রথম শিরোপা জয়ের যাত্রা শুরু হয় ২০০২ ফিফা বিশ্বকাপ দিয়ে। সেবার শক্তিশালী জার্মানিকে ২-০ গোলে হারিয়ে পঞ্চম বিশ্বকাপ জিতে সেলেসাওরা। এর এক বছর পরই অর্থাৎ ২০০৪ কোপা শিরোপাও ঘরে তুলে ব্রাজিল। সেবার চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী আর্জেন্টিনাকে ট্রাইবেকার ৪-২ গোলে হারায় এ্যালেক্স-আদ্রিয়ানোরা।

এই শতকে ব্রাজিলের তৃতীয় শিরোপাটি ছিল ২০০৫ সালের কনফেডারেশন কাপ। এবারও প্রতিকপক্ষ ফুটবলে ব্রাজিলের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ও প্রতিবেশি দেশ আর্জেন্টিনা। ফাইনালে আর্জেন্টাইনদের ৪-১ গোলে হারিয়ে দ্বিতীয় কনফেডারেশন কাপ শিনোপা জিতে ব্রাজিল। এক বছর বিরতির পর ২০০৭ সালে আবারও আসে কোপা। এবারও ফাইনালে মুখোমুখি সেই চিরচেনা ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা। ফাইনালে প্রিয় প্রতিদ্বন্দ্বীদের বিপক্ষে শিরোপা হাতছাড়া করেনি এ্যালেক্স-রবিনহো-আলভেজরা। ৩-০ গোলে মেসিদের হারিয়ে অষ্টম কোপা জিতে দেশটি।

চার বছর পর ২০০৯ সালে আবারও কনফেডারেশন কাপের ফাইনাল খেলে ব্রাজিল। সেবার ব্রাজিলের প্রতিপক্ষ ছিল যুক্তরাষ্ট্র। শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে যুক্তরাষ্ট্র ৩-২ গোলে হারিয়ে টানা দ্বিতীয় আর তৃতীয় বারের মতো কনফেডারেশন জিতে লুইস ফ্যাবিয়ানো-কাকারা।

কনফেডারেশন কাপের পরের আসর অর্থাৎ ২০১৩ ব্রাজিল কনফেডারেশন কাপের ফাইনালে স্পেনকে ৩-০ গোলে হারিয়ে হ্যাটট্রিক শিরোপা জিতে নেইমররা। তারপর অবশ্য পাঁচ বছরের লম্বা একটা সময় কোনো শিরোপা জিতেনি ব্রাজিল। এদিকে দীর্ঘ ১২ বছরে কোপার খরার কাটিয়ে অবশেষে চলতি বছরে ৪৬তম কোপা আশরে নিজেদের নবম শিরোপা জিতে সেলেসাওরা। সে সঙ্গে একুশ শতকে সর্বোচ্চ সাতটি আন্তর্জাতিক শিরোপা জিতে ব্রাজিল। এ যেন ব্রাজিলের সত্যিকারের ‌‘সেভেন আপ’ অর্জন।

আস/এসআইসু

Facebook Comments