মাদুরো সরকারের সঙ্গে সংলাপে সম্মত বিরোধীরা

315

আলোকিত সকাল ডেস্ক

নরওয়ের মধ্যস্থতায় প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো নেতৃত্বাধীন সরকারের প্রতিনিধিদের সঙ্গে আলোচনায় বসতে সম্মত হয়েছে ভেনেজুয়েলার প্রধান বিরোধীরা। রোববার (৭ জুলাই) নরওয়ে সরকারের পক্ষ থেকে পাঠানো এক বিবৃতিতে জানানো হয়, চলতি সপ্তাহেই আলোচনাটি শুরু হতে পারে। আসন্ন বৈঠক ইস্যুতে দেশটির স্বঘোষিত প্রেসিডেন্ট ও প্রধান বিরোধীদলীয় নেতা হুয়ান গুইদো এক বিবৃতিতে বলেন, ‘একমাত্র সংলাপই আমাদের চলমান রাজনৈতিক সংকটের টেকসই সমাধানের পথ হতে পারে। মাদুরো সরকারের সময় ক্ষেপণের চেষ্টা হতে দেওয়া হবে না।’

বিবৃতিতে গুইদো আরো বলেন, ‘নরওয়ের মধ্যস্থতায় সাড়া দিয়ে স্বৈরশাসনের অবসান বিষয়ে আলোচনা শুরু করতে বারবাডোসে দখলদার সরকারের প্রতিনিধিদের সঙ্গে এক বৈঠকে যোগ দিতে যাচ্ছে। ভেনেজুয়েলার জনগণ, আমাদের রাজনৈতিক মিত্র এবং বিশ্বের গণতান্ত্রিক শক্তি দেশের অবাধ ও স্বচ্ছ নির্বাচনের প্রয়োজনীয়তাকে স্বীকৃতি দিয়েছে। এই নির্বাচন আমাদের সংকট উত্তরণ ও ফলপ্রসূ ভবিষ্যৎ নির্মাণের পথকে আরও বেশি সুগম করবে।’

এর আগে ২০১৫ সাল থেকে স্বাস্থ্যকর খাবার ও পর্যাপ্ত চিকিৎসার অভাবে সৃষ্ট মানবিক সংকট থেকে বাঁচতে প্রায় ৪০ লাখের বেশি নাগরিক ভেনেজুয়েলা ত্যাগ করতে বাধ্য হন। পরবর্তীতে নির্বাচনে কারচুপি ও অর্থনৈতিক সংকট সৃষ্টির অভিযোগ এনে চলতি বছরের শুরুর দিকে দেশটিতে সরকার বিরোধী বিক্ষোভে নামেন জনগণ।

সে সুযোগে গত ২৩ জানুয়ারি নিজেকে দেশের অন্তর্বর্তীকালীন প্রেসিডেন্ট হিসেবে ঘোষণা করেন বিরোধীদলীয় নেতা জুয়ান গুইদো। তখন মাদুরোর সরকারকে সম্পূর্ণ অবৈধ দাবি করে নিজেকে বৈধ অন্তর্বর্তীকালীন প্রেসিডেন্ট ঘোষণা দিয়ে দেশব্যাপী অভ্যুত্থানের ডাক দেন তিনি। পরবর্তীতে এতে সমর্থন জানায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও তাদের সকল মিত্ররা। যদিও কথিত সেই অভ্যুত্থান চেষ্টা পুরোপুরি নস্যাতের ঘোষণা দেন প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো।

দক্ষিণ আমেরিকার এই দেশটিতে রাজনৈতিক সংকট সমাধানে চলতি বছরের মে মাসে আলোচনার উদ্যোগ নেয় প্রতিবেশী বিভিন্ন দেশ। তখন অসলোতে গুইদো সমর্থকরা আলোচনায় সম্মত হলেও একে একটি সময় ক্ষেপণের প্রচেষ্টা বলে অভিযোগ তোলে তা ভেস্তে দেন ক্ষোদ গুইদো। পরবর্তীতে গত জুনে জানা যায়, আরেক দফায় আলোচনার প্রস্তুতি নিচ্ছে উভয় পক্ষ।

আস/এসআইসু

Facebook Comments