যত ক্ষণ আমি পর্দায় থাকব, দর্শক চ্যানেল বদলাবেন না

306

আলোকিত সকাল ডেস্ক

পশ্চিম বাংলার দাপুটে অভিনেত্রী ঋ সেন। ইন্ডাস্ট্রিতে ঠোঁটকাটা হিসেবেই তার পরিচিতি। ছবিতে বোল্ড চরিত্রে অভিনয় করে ছাপিয়ে গেছেন সবাইকে। তার অভিনীত ‘কসমিক্স সেক্স’ তোলপাড় ফেলে দিয়েছিলো গোটা বাংলা চলচ্চিত্রে। মাঝখানে কিছু সময় বিরতি নিয়ে ফের বড় পর্দায় ফিরছেন ঋ।

সম্প্রতি পশ্চিম বাংলার শীর্ষস্থানীয় গণমাধ্যম আনন্দ বাজারকে একটি সাক্ষাৎকার দিয়েছেন ঋ। সেখানে তিনি তার ব্যক্তিগত জীবন ও সাম্প্রতিক কর্মব্যস্ততা নিয়ে খোলাখুলি কথা বলেছেন। তারই এক ফাঁকে বললেন, একটি মেগাতেও কাজ করছেন তিনি।
বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

এসভিএফ-এর প্রযোজনায় ‘ত্রিনয়নী’ নামের ওই টিভি প্রোডাকশনে রঙ্গনা চরিত্রে অভিনয় করছেন তিনি। এ প্রসঙ্গে সাক্ষাৎকারে ঋ বলেন, একটা বোকা মেয়ের চরিত্রে অভিনয় করছি। তবে দারুণ এনজয় করছি চরিত্রটি। কথা বলতে চায়। সদ্য ‘তিন কন্যা’ বলে ছবির কাজ শেষ হল। আর একটা ছবি করলাম ‘কড়াপাক’ বলে। আরও একটা থ্রিলারে কাজ করব। এ ভাবেই চলছে। আমি কোনও দিন নিজেকে বেঁধে রাখিনি, আর্ট ফিল্ম করেছি বলে মেগা করতে পারব না, এমনটা নয়। নিজের ওপর বিশ্বাস আছে, যত ক্ষণ আমি পর্দায় থাকব, দর্শক চ্যানেল বদলাবেন না।

সাক্ষাৎকারে নিজের সম্পর্কে বাজারে চাউর হওয়া কথা নিয়েও উত্তর দেন ঋ। লোকেরম মুখের সমালোচনা নিয়ে ঋ বলেন, আমার মুখের ওপর বা সোজাসুজি কারও কিছু বলার সাহস কখনও হয়নি। লোকে আমায় ভয় পায়। আর মহিলাদের ভয় পাওয়া ভাল বলে আমার মনে হয়। আমি জানি, আমার আত্মীয়স্বজন-বন্ধুরাও অনেক কথা বলেছেন। কিন্তু যে যাই বলুক, আমি আজ কয়েকটা কথা বলতে চাই। জামাকাপড় খুলে দাঁড়িয়ে পরলে সেটাই একমাত্র সাহসিকতার পরিচয়, এটা আমি একেবারেই মানি না। বরং এক জন মানুষ জীবন কেমন করে কাটাচ্ছেন, সেখানেই তার আসল সাহসিকতা। জামা পরা আর খোলা দিয়ে অভিনেত্রীর সাহস বিচার করবেন না প্লিজ!

শরীর দেখানোর ওস্তাদ ঋ, অভিনয় পারেন না! এমন সমালোচনারও জবাব দেন তিনি। নিজের অভিনয়ের প্রতি আত্মবিশ্বাস আছে জানিয়ে তিনি বলেন, আমি জানি অনেকের চেয়ে অভিনয়টা আমি অনেক ভাল করি। নইলে সতেরো বছর ধরে এই ইন্ডাস্ট্রিতে টিকে থাকতে পারতাম না। আমার কোনও পিআর নেই। চাইনি পিআর হোক। সবাই সেলফি তুলুক এটা চাইনি আমি।

আস/এসআইসু

Facebook Comments