রিফাত হত্যা: দৌড়ে গিয়ে রামদা নিয়ে আসে রিফাত ফরাজী (নতুন ভিডিও)

310

আলোকিত সকাল ডেস্ক

বরগুনা সদর কলেজ গেটের সামনে রিফাত শরীফ হত্যার ঘটনায় গণমাধ্যমের কাছে আরও একটি সিসিটিভি ফুটেজে এসেছে। ওই ফুটেজে এবার উঠে আসছে চাঞ্চল্যকর তথ্য। সেখানে দেখা গেছে রিফাত শরীফ হত্যায় নেতৃত্বে ছিল রিফাত ফরাজী এবং সহায়তায় ছিল তার ছোট ভাই রিশান ফরাজী।

নতুন সিসিটিভির ফুটেজে দেখা যায়, ২৬ জুন সকালে ১০টা ৩ মিনিটের সময় কলেজের সামনে ৬ থেকে ৭ জনকে নিয়ে অবস্থান করছে রিফাত ফরাজী ও তার ছোট ভাই রিশান।

কয়েক মিনিট পর যখন কলেজ থেকে স্ত্রীসহ রিফাত বের হন ঠিক তখনি রিশান ফরাজীর নেতৃত্বে কয়েকজন রিফাতকে মারতে মারতে সামনে নিয়ে আসে। কলেজ গেটের কিছু দূরে দাঁড়ানো নয়ন বন্ডের সামনে এনে তারা রিফাত শরীফকে কিল ঘুষি মারতে থাকে। ঠিক ওই সময় রিফাত ফরাজী ও আরেকজন দৌড়ে গিয়ে রামদা নিয়ে আসে এবং এবং একটি নয়নকে দেয়। প্রথমেই কোপ দেয় রিফাত ফরাজী। পরে নয়ন বন্ড উপর্যপুরি রামদা দিয়ে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করে চলে যায়।

রিফাত শরীফকে হত্যার ঘটনায় তার বাবা দুলাল শরীফ বাদী হয়ে বরগুনা সদর থানায় ১২ জনের নামোল্লেখ করে একটি মামলা করেন।
পুলিশ এখন পর্যন্ত মোট ১০ জনকে গ্রেপ্তার করেছে। এজাহারভুক্ত ১২ আসামীর মধ্যে এ পর্যন্ত পাঁচজন গ্রেপ্তার ও এর মধ্যে প্রধান অভিযুক্ত নয়ন বন্ড পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযদ্ধে নিহত হন।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, এজাহারভুক্ত ২ নম্বর আসামী রিফাত ফরাজী, ৪ নম্বর চন্দন, ৯ নম্বর হাসান, ১১ নম্বর অলি ও ১২ নম্বর আসামি টিকটক হৃদয়। ১ নম্বর আসামি নয়ন বন্ড পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হন।

মামলার ৩ নম্বর আসামী রিশান ফরাজী, ৫ নম্বর মুছা বন্ড, ৬ নম্বর রাব্বি আকন, ৭ নম্বর মোহাইমিনুল ইসলাম সিফাত, ৮ নম্বর আসামী রায়হান এখনো পলাতক।

আস/এসআইসু

Facebook Comments