রোববার মধ্যরাতে দেখা যাবে বছরের প্রথম সুপারমুন

5

দেশবার্তা ডেস্ক:রোববার মধ্যরাতে আকাশে দেখা মিলবে ওয়ার্ম সুপারমুনের। এটাই এ বছরের প্রথম সুপারমুন। মূলত মার্চ মাসের সুপারমুনকে ওয়ার্ম সুপারমুন বলা হয়। দক্ষিণ আমেরিকার কয়েকটি আদিবাসী সম্প্রদায়ের মানুষ এই সময়ের সুপারমুনের এই নাম দিয়েছে। এই সময় খুব বেশি কেঁচো দেখতে পাওয়া যায় বলে গত প্রায় এক শতাব্দী ধরে এই সময়ের চাঁদ ওয়ার্ম মুন হিসেবে পরিচিত। সুপারমুনের সময় চাঁদ পৃথিবীর কাছাকাছি চলে আসায় এটিকে অনেক বড় ও উজ্জ্বল দেখায়। নাসা জানিয়েছে, রাতের আকাশে বেশ বড় আকারের চাঁদ দেখতে পাওয়ার সুযোগ মিলবে এ বার টানা ৩ দিন ধরে। শনিবার গভীর রাত থেকে মঙ্গলবার পর্যন্ত এই বড় চাঁদ দেখা যাবে।

এমন বড় আকারের চাঁদের নাম ‘সুপারমুন’ দেওয়া হয় ১৯৭৯ সালে।

এ বছরে ৪টি ‘সুপারমুন’ হবে। সবগুলিই হবে মার্চ থেকে জুনের মধ্যে। এই চাঁদেই ভারত, বাংলাদেশে পালিত হচ্ছে হোলি উৎসব। আমেরিকার প্রাচীন জাতিগোষ্ঠীগুলো এই চাঁদকে ভিন্ন আরো অনেক নামে বলে জানিয়েছে সিএনএন। আলগোনকুইন জাতির লোকেরা এই চাঁদকে বলেন ‘নামোসাক কেসোস’ বা মাছ ধরার চাঁদ। আবার কানাডার ক্রি জাতির লোকেরা বলেন ‘মিগিসুপিজুম’ বা ঈগল চাঁদ।

সাধারণত বছরে ১২টি পূর্ন চাঁদ দেখা যায়। এগুলোর আলাদা আলাদা নামও রয়েছে। ওল্ড ফার্মার্স আলমানাক বই অনুযায়ী এই চাঁদগুলোর নাম হচ্ছে, গোলাপি চাঁদ, ফুল চাঁদ, স্ট্রবেরি চাঁদ, হরিণ চাঁদ, স্টারজন চাঁদ, ফসল তোলার চাঁদ, শিকার করার চাঁদ, বীবর চাঁদ ও ঠান্ডা চাঁদ। এ বছর এই পূর্ণ চাঁদগুলো দেখা যাবে, ২৬ এপ্রিল, ২৬ মে, ২৪ জুন, ২৩ জুলাই, ২২ আগস্ট, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০ অক্টোবর, ১৯ নভেম্বর ও ১৮ ডিসেম্বর।

Facebook Comments Box