সাগরে লঘুচাপ, চলতি মাসেই বন্যার পূর্বাভাস

197

আলোকিত সকাল ডেস্ক

চলতি বছরের জুন মাসে স্বাভাবিকের তুলনায় ৩৭ দশমিক ৭ শতাংশ কম বৃষ্টিপাত হলেও জুলাই মাসে এই অবস্থার পরিবর্তনের আভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। চলতি (জুলাই) মাসের দীর্ঘমেয়াদী পূর্বাভাসে দেশের দক্ষিণাঞ্চলে স্বাভাবিকের তুলনায় বেশি বৃষ্টিপাতের পাশাপাশি মাসের শেষার্ধে দেশের উত্তরাঞ্চল ও উত্তর-পূর্বাঞ্চলে মধ্যমেয়াদী বন্যা পরিস্থিতির আভাস দেওয়া হয়েছে।

আবহাওয়া অফিস বলছে, বর্ষার এই ধারা অব্যাহত থাকলে জুলাই মাসের মাঝামাঝি ও শেষার্ধে দেশের উত্তরাঞ্চল এবং উত্তর-পূর্বাঞ্চলে বন্যা পরিস্থিতির তৈরি হতে পারে।

জ্যেষ্ঠ আবহাওয়াবিদ আবদুর রহমান খান বলেন, বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপটি আরও ঘণীভূত হয়ে উত্তরপশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন বাংলাদেশ, পশ্চিমবঙ্গ ও উড়িষ্যা উপকূলীয় এলাকায় অবস্থান করছে। এটি আরও ঘণীভূত হয়ে উত্তরপশ্চিম দিকে অগ্রসর হতে পারে।

র প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় বায়ুচাপের তারতম্যের আধিক্য বিরাজ করায় বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা, উত্তর বঙ্গোপসাগর এবং সমুদ্র বন্দরের ওপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে।”

এ কারণে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা এবং পায়রা সমূদ্র বন্দরকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

সোমবার (১ জুলাই) আবহাওয়া অধিদপ্তরে বিশেষজ্ঞ কমিটির নিয়মিত বৈঠক শেষে পরিচালক সামছুদ্দিন আহমেদ স্বাক্ষরতি জুলাই মাসের দীর্ঘ মেয়াদী পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, এ মাসের স্বাভাবিক বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। তবে দেশের দক্ষিণাঞ্চলে স্বাভাবিকের চেয়ে কিছুটা বেশি বৃষ্টিপাত হতে পারে।

এ মাসে বঙ্গোপসাগরে দুই থেকে তিনটি বর্ষাকালীন লঘুচাপ সৃষ্টি হতে পারে, যার মধ্যে একটি নিম্নচাপের রূপ নিতে পারে। এছাড়া মৌসুমী বৃষ্টিপাতের প্রভাবে জুলাই মাসের মধ্যভাগে ও শেষার্ধে দেশের উত্তরাঞ্চল ও উত্তর-পূর্বাঞ্চলের কিছু স্থানে স্বল্প থেকে মধ্যমেয়াদী বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হতে পারে।

পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, জুন মাসে বৃষ্টিপাত, লঘুচাপ, কৃষি আবহাওয়া এবং দেশের নদ-নদীর অবস্থা পূর্বাভাসের সঙ্গে সংগতিপূর্ণ ছিল।

আস/এসআইসু

Facebook Comments