স্কুলে প্রেম ঠেকাতে অভিনব কৌশল

400

আলোকিত সকাল ডেস্ক

ক্লাসের মধ্যে ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে কাগজের চিরকুট দেওয়া-নেওয়া প্রতিনিয়ত, স্কুল চলাকালীন মেয়েদের কমন রুমের সামনে ছাত্রদের দীর্ঘ লাইন, স্কুলের মধ্যে হাতে হাত ধরে হেঁটে যাওয়ার দৃশ্যও নিয়মিত। যে কারণে শিক্ষার্থীদের পড়াশোনা একেবারে শিকেয় উঠেছে বলা চলে। আর তাই ছাত্র-ছাত্রীদের এসব থেকে দূরে রাখতে অভিনব এক কৌশল অবলম্বন করেছে স্কুল কর্তৃপক্ষ।

স্কুল কর্তৃপক্ষ এখন থেকে ছাত্র-ছাত্রীদের আলাদা আলাদা ক্লাস নেবে। এক্ষেত্রে সপ্তাহে ছয় দিনের বিপরীতে ছাত্রদের তিন দিন এবং ছাত্রীদের তিন দিন করে ক্লাস হবে।

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মালদহের বুলবুলচণ্ডী গিরিজাসুন্দরী বিদ্যামন্দির কর্তৃপক্ষের এমন সিদ্ধান্তে বিতর্ক শুরু হয়েছে।

কর্তৃপক্ষ বলছে, ‘ছাত্রছাত্রীদের কিছু আচরণের জেরেই এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। কিন্তু স্কুলের ছাত্রছাত্রী ও অভিভাবকদের একাংশের মধ্যে প্রশ্ন উঠেছে, আচরণ যেমনই হোক না কেন, এমন সিদ্ধান্ত কি স্কুল কর্তৃপক্ষ নিতে পারেন? একই প্রশ্ন তুলেছেন এলাকার বিশিষ্টজনেরাও।

ওই স্কুলের এক শিক্ষিকা বলছেন, ‘নিষেধ করলে ক্লাসের মধ্যে বিড়াল-কুকুরের ডাক ডাকে। এর প্রভাব নিচু ক্লাসের ছাত্রদের উপরেও পড়ছে। ছাত্রদের ক্লাস সাসপেন্ড থেকে শুরু করে অভিভাবকদের ডেকেও নালিশ জানানো হয়েছে,কিন্তু তাতেও কিছু হয়নি। ফলে ছাত্র-ছাত্রীদের আলাদা দিনে ক্লাসের ব্যবস্থা করেছে স্কুল কর্তৃপক্ষ।’

ছাত্রীদের অনেকে বলছে, ‘কিছু ছাত্র স্কুলের মধ্যে উত্ত্যক্ত করত। স্কুল কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্তে আমরা খুশি।’

তবে তাদের প্রশ্ন সপ্তাহে ৩ দিন ক্লাস হলে পাঠ্যক্রম শেষ হবে? জবাবে শিক্ষকদের তরফ থেকে বলা হচ্ছে, বাড়তি ক্লাস নিয়ে পাঠ্যক্রম শেষ করা হবে।

আস/এসআইসু

Facebook Comments