৯ জনের মৃত্যুদণ্ড, ২৫ জনের যাবজ্জীবন

299

আলোকিত সকাল ডেস্ক

পাবনার ঈশ্বরদীতে বহুল আলোচিত তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেতা ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ট্রেনবহরে গুলিবর্ষণের মামলার রায়ে ৯ জনকে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে মামলায় ২৫ জনকে যাবজ্জীবন ও ১৩ জনকে ১০ বছর করে কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

বুধবার (৩ জুলাই) পাবনার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের ভারপ্রাপ্ত বিচারক রুস্তম আলী দুপুরে এ আদেশ দেন। এ সময় মোট ৫২ আসামিদের মধ্যে ৩২ জন কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিলেন। ৫ জন আসামি মারা গেছেন। বাকি আসামিদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন, জাকারিয়া পিন্টু, মোকলেছুর রহমান বাবলু, একেএম আক্তারুজ্জামান, রেজাউল করিম ওরফে শাহিন, অটল, আজিজুর রহমান শাহিন, শ্যামল, মাহবুবুর রহমান, শামসুল আলম। এর মধ্যে ৮ জন কারাগারে আছেন। পলাতক একজন জাকারিয়া পিন্টু।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট এপিপি অ্যাডভোকেট সাজ্জাদ হোসেন লিটন জানান, ২৫ বছর পর দেয়া মামলার রায়ে তারা সন্তুষ্ট। এর মাধ্যমে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।

আর আসামিপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মাসুদ খন্দকার বলেন, এ রায়ে সন্তুষ্ট নন তারা। রাজনৈতিকভাবে প্রভাবিত রায় দেয়া হয়েছে। উচ্চ আদালতে আপিল করার কথা জানান তিনি।

এ বিষয়ে পাবনা জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান তোতা বলেন, রায় নিয়ে আমাদের কোনো মন্তব্য নেই। কোনো কর্মসূচিও নেই। তবে আইনি প্রক্রিয়ায় মামলার মোকাবেলা করা হবে।

উল্লেখ, ১৯৯৪ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেতা ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দলীয় কর্মসূচিতে ট্রেনবহর নিয়ে খুলনা থেকে সৈয়দপুর যাচ্ছিলেন। পথে ঈশ্বরদী রেলওয়ে জংশনে তাকে বহনকারী ট্রেনবহর যাত্রাবিরতি করলে ওই ট্রেনে লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ করা হয়।

পরে তৎকালীন ঈশ্বরদী জিআরপি থানার ওসি নজরুল ইসলাম বাদি হয়ে ৭ জনকে আসামি করে মামলা করেন। ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করার পর মামলাটি পুনঃতদন্ত করে পুলিশ। পরে সিআইডি তদন্ত করে ১৯৯৭ সালের ৩ এপ্রিল ৫২ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করে।

আস/এসআইসু

Facebook Comments