বলিউড: প্রথম সুন্দরী, স্ক্যান্ডাল, বিদেশি, রাজ কাপুর, জনক, দূত শাহরুখ

227

আলোকিত সকাল ডেস্ক:৩৯

আজকের বলিউড সবার চেনা-জানা। কিন্তু বলিউডের ইতিহাস কজন জানেন! কাদের হাত ধরে আজকে বিশ্বময় সারা জাগিয়েছে বলিউডের অসংখ্য ছবি। আসুন জেনে নেই সেই ইতিহাস:

আজকের দুনিয়ায় কোনো সিনেমা বা নাটক নারী চরিত্র ছাড়া কল্পনা করা যায় না। নারী ছাড়া কোনো নাটক সিনেমা অপূর্ণ রয়ে যায়। কিন্তু এমন এক সময় ছিল বলিউডে নারী চরিত্র ছিল অশোভনীয়। বলিউডের ইতিহাস ঘাটলে দেখায় যায়, দাদাসাহেব ফালকে পরিচালিত নির্বাক ছবি ‘রাজা হরিশচন্দ্র’ বলিউডের প্রথম চলচ্চিত্র৷ মুক্তি পেয়েছিল ১৯১৩ সালের ৩ মে। রামায়ণ ও মহাভারতে বর্ণিত রাজা হরিশচন্দ্রের জীবন নিয়ে তৈরি এই ছবির নারী চরিত্রগুলোতে অভিনয় করেছেন পুরুষরা। কেননা তখন অভিনয় করাটা নারীদের জন্য অশোভন পেশা মনে করা হতো৷

বলিউডের প্রথম সবাক ছবি ‘আলম আরা’

১৯৩১ সালে ভারত প্রথম সবাক ছবির দেখা পায়৷ অর্দেশির ইরানি পরিচালিত আলম আরা ছবিটি বাণিজ্যিকভাবে বেশ সফল হয় কারণ তাতে সংগীত আর নৃত্যের সমারোহ ছিল৷ সেই ধারা এখনো চলছে৷ বলিউডের ছবির একটি উল্লেখযোগ্য অংশ হচ্ছে গান আর নাচ৷

বলিউডের জনক ছিলেন দাদাসাহেব ফালকে

ঢুন্ডিরাজ গোপাল ফালকে (১৮৭০-১৯৪৪), যিনি দাদাসাহেব ফালকে নামে বেশি পরিচিত, তাকে ভারতীয় ছবির জনক বলা হয়৷ তাই ভারতের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ চলচ্চিত্র অ্যাওয়ার্ড তার নামে দেয়া হয়৷ প্রায় একশোটির মতো ছবি পরিচালনা করেছেন দাদাসাহেব ফালকে৷ তার পরিচয় ছিল জার্মান নাগরিক কার্ল হ্যারৎস-এর সঙ্গে, যিনি আবার চলচ্চিত্র পরিচালক লুমিয়ের ভাইদের সঙ্গে পরিচিত ছিলেন৷

প্রথম স্ক্যান্ডাল: দেবিকা রানি ভারতীয় চলচ্চিত্রের প্রথম স্ক্যান্ডালের জন্ম দেন অভিনেত্রী দেবিকা রানি (১৯০৮-১৯৯৪)৷ ১৯৩৩ সালে তিনি ‘কর্ম’ ছবিতে চার মিনিটের একটি চুম্বন দৃশ্যে অভিনয় করেন৷ এতে রানির সঙ্গে অভিনয় করেন তাঁর স্বামী হিমাংশু রায়, যিনি পরবর্তীতে জার্মান পরিচালক ফ্রানৎস অস্টেন-এর সঙ্গে মিলে বেশ কয়েকটি চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন৷

সমালোচকদের প্রিয় রাজ কাপুর পঞ্চাশের দশকে দেশের বাইরে ভারতীয় চলচ্চিত্রকে জনপ্রিয় করেন পরিচালক, অভিনেতা রাজ কাপুর৷ বিশেষ করে তাঁর ‘আওয়ারা’ ছবিতে সামাজিক অবিচারগুলো তুলে ধরা হয়৷ ফলে সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়ন, চীন সহ অন্যান্য কমিউনিস্ট দেশগুলোতে তিনি জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন৷

প্রথম অস্কার মনোনয়ন ১৯৫৭ সালের ‘মাদার ইন্ডিয়া’ ছবিটি ভারতের প্রথম চলচ্চিত্র হিসেবে অস্কার মনোনয়ন পায়৷ মূল ভূমিকায় অভিনয় করেন নার্গিস৷

শাহরুখ খান: বলিউডের দূত এক দশকেরও বেশি সময় ধরে বলিউডের দূত হিসেবে পরিচিত শাহরুখ খান৷ তাঁর প্রায় সব ছবিই সুপার হিট হয়েছে৷ জার্মানিতেও তিনি বেশ পরিচিত৷ তাই স্থানীয় টেলিভিশনে শাহরুখ অভিনীত মুভি দেখানো হয়৷

সারা বিশ্বে ‘লগান’ ২০০১ সালে মুক্তি পাওয়া লগন মুভিটি শুধু যে ভারতে এবং বিদেশে বসবাসরত ভারতীয় কমিউনিটিতে দেখানো হয়েছে তাই নয়৷ অস্কার মনোনয়ন পাওয়ার পর ছবিটি সারা বিশ্বের সিনেমা হলগুলোতে মুক্তি পায়৷ ‘টাইম’ ম্যাগাজিন লগানকে বিশ্বের সবচেয়ে সেরা চলচ্চিত্রের একটি বলে আখ্যায়িত করেছে৷

বিশ্বের সবচেয়ে সুন্দরী নারী ১৯৯৪ সালে ‘মিস ওয়ার্ল্ড’ খেতাব পাওয়া ঐশ্বর্য রাই ২০০৩ সালে কান চলচ্চিত্র উৎসবের জুরি মনোনীত হন৷ ‘টাইম’, ‘ফোর্বস’ এর মতো ম্যাগাজিনগুলো তাঁকে নিয়মিতভাবে বিশ্বের সবচেয়ে সুন্দরী নারী আখ্যায়িত করে থাকে৷ ‘দেবদাস’ আর ‘মোহাব্বতেঁ’ নামের ছবিগুলো তাঁকে সুপারস্টার খ্যাতি এনে দেয়৷ হলিউডের অনেক ছবিতেও তিনি অভিনয় করেন৷ সূত্র: ডয়চে ভেলে।

আস/এসআইসু

Facebook Comments