বিশ্ব রেকর্ড করেই ছাড়লেন রোহিত

272

আলোকিত সকাল ডেস্ক

এ বিশ্বকাপে নিজের পঞ্চম সেঞ্চুরি তুলে নিয়ে বিশ্ব রেকর্ড করেছেন ভারতীয় ওপেনার রোহিত শর্মা। ছবি: এএফপিএ বিশ্বকাপে নিজের পঞ্চম সেঞ্চুরি তুলে নিয়ে বিশ্ব রেকর্ড করেছেন ভারতীয় ওপেনার রোহিত শর্মা। ছবি: এএফপি
এক বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি সেঞ্চুরির মালিক হয়েছেন, বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বে সবচেয়ে বেশি রানও এখন রোহিত শর্মার। তাঁর দলও শ্রীলঙ্কাকে ৭ উইকেটে হারিয়ে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে উঠে গেছে

বিশ্বকাপে সেঞ্চুরি করা সহজ নয়, এর সাক্ষ্য দেবে পরিসংখ্যান। বিশ্বকাপে অন্তত ৫ টি সেঞ্চুরি আছে, এই টুর্নামেন্ট শুরুর আগে এমন ব্যাটসম্যান ছিলেন মাত্র তিনজন। অথচ রোহিত শর্মা এই এক বিশ্বকাপেই করে ফেললেন ৫ টি সেঞ্চুরি। এতে করে দারুণ এক বিশ্ব রেকর্ডেরও মালিক হয়েছেন এ ভারতীয় ওপেনার। বিশ্বকাপের এক আসরে সর্বোচ্চ সেঞ্চুরির মালিক এখন রোহিত।

এর আগে ২০১৫ বিশ্বকাপে চারটি সেঞ্চুরি করেছিলেন শ্রীলঙ্কান কিংবদন্তি কুমার সাঙ্গাকারা। এত দিন এটিই ছিল বিশ্বকাপের এক আসরে সর্বোচ্চ সেঞ্চুরির রেকর্ড। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ১০৩ রানের ইনিংস খেলে সাঙ্গাকারার রেকর্ডটিকে অতীত বানিয়ে দিলেন রোহিত।

টুর্নামেন্ট শুরুর আগে ভারতের সম্ভাব্য সেরা তারকা হিসেবে বেশির ভাগই বেছে নিয়েছিলেন অধিনায়ক বিরাট কোহলিকে। কোহলির সাম্প্রতিক ফর্ম বিবেচনায় সেটি অস্বাভাবিকও ছিল না। কিন্তু কোহলি নন, বিশ্বকাপ মাতিয়ে দিলেন তাঁর সতীর্থ রোহিত। বিশ্বকাপ শুরুই করেছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সেঞ্চুরি করে। অপরাজিত ১২২ রানের ইনিংস খেলে জেতালেন ভারতকে। মাঝে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে থেমেছিলেন ফিফটি করেই, এরপর একে একে করে ফেললেন আরও চারটি সেঞ্চুরি। এর মধ্যে শেষ তিনটি আবার টানা তিন ম্যাচে। সেঞ্চুরির হ্যাটট্রিক!

দ্বিতীয় সেঞ্চুরিটি চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের বিপক্ষে। ১৪০ রানের ইনিংস খেলে সেদিনও জেতালেন দলকে। মাঝে দুই ম্যাচের ‘বিরতি’ নিয়েছিলেন আফগানিস্তান ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে। এরপর আবার নামলেন সেঞ্চুরি করার মিশনে। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে করলেন ১০২, এক দিন পরেই বাংলাদেশের বিপক্ষে ১০৪। এবার শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেও করলেন ১০৩ রান। ইংল্যান্ড-বাংলাদেশ দুই ম্যাচেই ইনিংসের শুরুতে রোহিতকে জীবন দিয়েছিলেন ফিল্ডাররা। রোহিত সেটির ‘প্রতিদান’ দিয়েছেন সেঞ্চুরি করেই।

এক রেকর্ডে সাঙ্গাকারাকে টপকে গিয়েছেন, আরেক রেকর্ডে সাঙ্গাকারাকে ছোঁয়ার সুযোগ রোহিত পাবেন সেমিফাইনালে। সেদিনও যদি সেঞ্চুরি করতে পারেন, সাঙ্গাকারার পর মাত্র দ্বিতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে টানা চার ওয়ানডেতে সেঞ্চুরি করার বিরল মালিক হবেন রোহিত।

সাঙ্গাকারার রেকর্ডের পাশাপাশি শচীন টেন্ডুলকারের একটি রেকর্ডও ভেঙেছেন রোহিত। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সেঞ্চুরির পর এ বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বে রোহিতের রান এখন ৬৪৭। বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বে সবচেয়ে বেশি রানের নতুন রেকর্ড এখন এটিই। এর আগে ২০০৩ বিশ্বকাপে টেন্ডুলকারের ৫৮৬-ই ছিল গ্রুপ পর্বে কোনো ব্যাটসম্যানের সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড। শচীনের আরেকটি রেকর্ডও এখন রোহিতের দৃষ্টিসীমায়। সেমিফাইনালে মাত্র ২৭ রান করতে পারলেই টেন্ডুলকারের ৬৭৩কে টপকে গিয়ে বিশ্বকাপের এক আসরে সবচেয়ে বেশি রানের মালিক হয়ে যাবেন ভারতীয় ওপেনার। টেন্ডুলকারের আরেকটি রেকর্ড ছুঁয়েছেন রোহিত। বিশ্বকাপ ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি সেঞ্চুরি এখন এ দুজনের। ৬টি বিশ্বকাপ খেলে ৪৪ ইনিংসে ৬টি সেঞ্চুরি টেন্ডুলকারের। আর দ্বিতীয় বিশ্বকাপ খেলতে এসে মাত্র ১৬ ইনিংসেই টেন্ডুলকারের পাশে বসে গেলেন রোহিত!

এদিকে রোহিতের দিনে রেকর্ড করেছেন মিচেল স্টার্কও। ম্যানচেস্টারে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ৫৯ রান দিয়ে ২ উইকেট নিয়েছেন স্টার্ক। এই ২ উইকেট মিলিয়ে এ বিশ্বকাপে এখনো পর্যন্ত ২৬ উইকেট হয়ে গেল অস্ট্রেলীয় পেসারের। এক বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি উইকেট পাওয়ার রেকর্ড এখন যৌথভাবে স্টার্কের দখলে। রেকর্ডটি নিজের স্বদেশির সঙ্গেই ভাগাভাগি করছেন স্টার্ক। ২০০৭ বিশ্বকাপে ২৬ উইকেট পেয়েছিলেন গ্লেন ম্যাকগ্রাও। তবে ম্যাকগ্রা খেলেছিলেন ১১ ম্যাচ। সেমিফাইনালে আর একটি উইকেট নিতে পারলেই ম্যাকগ্রাকে ছাড়িয়ে রেকর্ডটি শুধুই নিজের করে নেবেন স্টার্ক।

আস/এসআইসু

Facebook Comments