মোহনপুরে গৃহবধূ ধর্ষণের পরে হত্যা মামলার প্রধান আসামি গ্রেফতার

385

মোহনপুর প্রতিনিধি

রাজশাহীর মোহনপুরে গৃহবধূ আসমা বেগম (৪৫) ধর্ষণের পর কুপিয়ে হত্যা মামলার মূল আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

উল্লেখ্য,মোহনপুর উপজেলার উষায়ের হাটরা গ্রামের মৃত মফিজ উদ্দিনের মেয়ে আসমা বেগম (৪৫) দ্বিতীয় বিয়ে করে দুই মেয়েকে বিয়ে দেওয়ার পর ছেলে মাসুদ রানা (২২) কে সাথে নিয়ে হাটরা গ্রামে বাবার বাড়িতে থাকতেন।

গত ২২ জুন শনিবার গৃহবধূর আসমা বেগমের লাশ পদ্ম বিলে শসা ক্ষেতে থেকে উদ্ধারের পর ছেলে মাসুদ রানা বাদি হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামি করে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।

ঘটনার পর থেকে রাজশাহী জেলা পুলিশের সদর সার্কেল অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুমন দেবের নেতৃত্বে জেলা ডিবির সদস্যরা ও মোহনপুর থানার পুলিশ আসামি গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান চালায়। গত রোববার রাতে মোহনপুর থানার পুলিশ কেশরহাটে অভিযান চালিয়ে দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করেন।

এবং গতকাল ৩ জুলাই বুধবার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলার কামারপাড়া থেকে প্রধান আসামি
উপজেলার রায়ঘাটি ইউনিয়নের হাটরা দমদমা গ্রামের মৃত খোদাবক্সের ছেলে ডাব ব্যবসায়ী আমজাদ হোসেন (৫০)কে গ্রেপ্তার করেছেন মোহনপুর থানা পুলিশ

আসামীর দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত হাসুয়া উদ্ধার করেছে পুলিশ।

গ্রেফতারকৃত আসামি প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে হত্যার সাথে সরাসরি জড়িত এবং টাকা পয়সা লেনদেন বিষয়টি স্বীকার করেছে বলে নিশ্চিত করেছেন মোহনপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোস্তাক আহম্মেদ।

গত শনিবার বাড়ি থেকে প্রায় আধা কিলোমিটার দূরে পদ্ম বিলে শসা ক্ষেতে আসমা বেগমের ক্ষতবিক্ষত মরদেহ পাওয়া যায়। ঘটনাস্থলে পাওয়া যায় একটি কনডমের প্যাকেট ও কোমল পানির বোতল। তাই তাকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে বলে ধারণা করছে পুলিশ। তিনি উপজেলার উষায়ের হাটরা গ্রামের বাবুল ইসলামের স্ত্রী।

আস/এসআইসু

Facebook Comments