সাঁথিয়ায় বিদ্যুতের খুঁটি রেখেই সড়ক প্রশস্তকরণ

195

আলোকিত সকাল ডেস্ক

পাবনার সাঁথিয়ার স্থানীয় মহাসড়কে বৈদ্যুতিক খুঁটি রেখেই সড়ক প্রশস্তকরণ কাজ শেষ করা হয়েছে। বিদ্যুত্ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে খুঁটি অপসারণের জন্য কেউ কোনো আবেদন দেননি। এদিকে রাস্তার ওপর বিদ্যুতের খুঁটি থাকায় ঝুঁকি নিয়ে চলছে যানবাহন। মাঝে মাঝেই ঘটছে দুর্ঘটনা।

জানা গেছে, এলজিইডির আওতায় সাঁথিয়া উপজেলা সদরের সরকারি পাইলট স্কুলের সামনে থেকে ধুলাউড়ি হয়ে ডহরজানি পর্যন্ত স্থানীয় মহাসড়কটির প্রশস্তকরণের কাজ প্রায় ১০ কোটি টাকা ব্যয়ে সম্প্রতি শেষ হয়েছে। সড়কটির বেশ কয়েক জায়গায় প্রায় ছয়টি বৈদ্যুতিক খুঁটি রেখেই কার্পেটিংয়ের কাজ অতি সম্প্রতি শেষ করা হয়। প্রতিদিন শত শত যানবাহন চলাচল করে এই সড়ক দিয়ে। ঝুঁকিপূর্ণ বিদ্যুতের খুঁটির কারণে যানচলাচলে বিঘ্নসহ নানাবিধ দুর্ঘটনার আশঙ্কা করছেন ওই সড়কে চলাচলকারী জনসাধারণসহ যানবাহনের চালকেরা।

ধুলাউড়ি নতুনপাড়া গ্রামের বাসিন্দা ও ধুলাউড়ি মাদ্রাসার শিক্ষক রকিবউদ্দিন রতন ও একই গ্রামের বাসিন্দা ব্যবসায়ী শামীম জানান, রাস্তার ওপর বিদ্যুতের খুঁটি থাকায় মাঝে মাঝেই যানবাহন দুর্ঘটনা কবলিত হয়। এগুলো অবিলম্বে অপসারণ করা জরুরি।

অনামিকা বাসের চালক মাসুদ ও ট্রাকচালক খোকন মিয়া বলেন, রাস্তার ওপর আধা কিলোমিটারের মধ্যে চারটি বিদ্যুতের খুঁটি থাকায় এখানে এসে গাড়ির গতি কমিয়ে দিতে হয়। পর্যাপ্ত আলো না থাকায় রাতে চলাচলে ঝুঁকি বেড়ে যায়।

সাঁথিয়া উপজেলা প্রকৌশলী শহিদুল্লাহ বলেন, বিষয়টি নিয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে বৈদ্যুতিক খুঁটি অপসারণের চেষ্টা করবো।

পাবনা পল্লীবিদ্যুত্ সমিতি-২ এর আতাইকুলা জোনের ডিজিএম তুষার কান্তি মন্ডল জানান, সংশ্লিষ্ট কেউ খুঁটি অপসারণের জন্য কোনো আবেদন দেননি। যদি দিতেন তবে আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতাম।

ধুলাউড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জরিফ আহমেদ বলেন, প্রায় একমাস আগে এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে অবহিত করলেও তারা কোনো পদক্ষেপ নেয়নি।

আস/এসআইসু

Facebook Comments Box